বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৯:৪৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
রাজধানীতে আবাসিক ভবনে বিস্ফোরণ; নিহত ১ শেরপুরে পল্লী বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নারীসহ ২ জনের মৃত্যূ শান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় বিশ্বে নির্ভরযোগ্য নাম বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী শহীদ জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেলেন ড. মঈন খান ‘সরকার ভোটের বাক্স দখল করে ইচ্ছামত যাকে খুশি তাকে এমপি বানাচ্ছে’ ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে রাজশাহীতে বিভাগীয় এডভোকেসি সভা ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড স্কুল; পাঠদান নিয়ে দুশ্চিন্তায় অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা পাকিস্তানে বাস খাদে পড়ে শিশু-নারীসহ নিহত ২৮ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের জানাযায় মানুষের ঢল; হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার নরসিংদীতে বাসের ধাক্কায় শ্রমিক নিহত; মহাসড়ক অবরোধসহ গাড়ী ভাঙচুর

নরসিংদীর নাছিমা কাদির মোল্লা স্কুলের দেশসেরা ফলাফল

নরসিংদী প্রতিনিধি

এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে নরসিংদীর নাছিমা কাদির মোল্লা হাই স্কুল অ্যান্ড হোমস। এ বছর প্রতিষ্ঠানটি থেকে ২৯৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৯৪ জন। তারা সবাই বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী।

এর আগে ২০২২, ২০১৭ ও ২০১৫ সালে শতভাগ জিপিএ-৫ পেয়ে দেশ সেরা ফলাফল অর্জন করেছিল এ প্রতিষ্ঠানটি।

 

নাছিমা কাদির মোল্লা হাই স্কুল অ্যান্ড হোমস সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পর থেকে পিইসি, জেএসসি ও এসএসসিতে টানা শতভাগ পাসসহ প্রায় প্রতিবছরই বোর্ডে দেশ সেরার স্থান দখল করে আসছে। ২০২৩ সালে ২৭৮ জন পরীক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ২৭০ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল।

এ ছাড়া শতভাগ পাসসহ ২০২২ সালে ২৬৬ জন পরীক্ষার্থীর সবাই জিপিএ-৫ পেয়েছিল এবং ২০২১ সালে ২৪৭ জনের মধ্যে ২৩৭ জন, ২০২০ সালে ২১৪ জনের মধ্যে ২০০ জন, ২০১৯ সালে ১৭১ জনের মধ্যে ১৬৮ জন, ২০১৮ সালে ১৩৯ জনের মধ্যে ১৩৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ২০১৭ সালে অত্র স্কুল থেকে  ১৬৪ জন পরীক্ষার্থীর সবাই জিপিএ-৫ পেয়েছিল।

বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫  প্রাপ্ত আছিয়া জান্নাতুল বর্ষা নামে ক শিক্ষার্থী উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, শিক্ষক ও বাবা-মায়ের পরিশ্রমের কারণেই আমার এ ফলাফল। এ ছাড়া আমি একটি ক্লাসও মিস করিনি। কোনো পরীক্ষা-মডেল টেস্ট বাদ দেইনি। তাই চর্চাটা খুব ভালো হয়েছে। জিপিএ-৫ পেয়ে খুব ভালো লাগছে।

লাকিব হাসান লিনার নামে জিপিএ-৫ পাওয়া অপর শিক্ষার্থী বলেন, পরীক্ষায় ভালো করার জন্য যা যা সাপোর্ট দরকার তার সবই বাবা-মা ও শিক্ষকদের কাছ থেকে পেয়েছি। শিক্ষকরা আমাদের আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছেন। তা ছাড়া আমাদের এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকলেই আন্তরিক।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. ইমন হোসেন বলেন, একটি বিদ্যালয়ের ভালো ফলের মূলমন্ত্র হচ্ছে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে সমন্বয়। আবদুল কাদির মোল্লা স্যারের ইনোভেটিভ চিন্তাচেতনা, সময়োপযোগী সঠিক দিকনির্দেশনায় আমাদের এ ফলাফল অব্যাহত আছে।

তিনি বলেন, আমাদের শিক্ষকরাও অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে। সকলের পরিশ্রম ও সঠিক তত্ত্বাবধানের মাধ্যমেই এ প্রতিষ্ঠানটি বরাবরই ভাল ফলাফল অর্জন করে আসছে।

শিপ্র/শাহোরা/

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2023 shironamprotidin.com
Design & Developed BY khanithost
error: Content is protected !!