বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১১:০৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
লংগদুতে চেয়ারম্যান বাবু; ভাইস চেয়ারম্যান রকিব ও ফাতেমা নির্বাচিত দেশের ৫ পার্সেন্ট মানুষের ভোট না পেয়েও আ’লীগ পূণরায় সরকার গঠন করে রাজধানীতে আবাসিক ভবনে বিস্ফোরণ; নিহত ১ শেরপুরে পল্লী বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নারীসহ ২ জনের মৃত্যূ শান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় বিশ্বে নির্ভরযোগ্য নাম বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী শহীদ জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেলেন ড. মঈন খান ‘সরকার ভোটের বাক্স দখল করে ইচ্ছামত যাকে খুশি তাকে এমপি বানাচ্ছে’ ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে রাজশাহীতে বিভাগীয় এডভোকেসি সভা ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড স্কুল; পাঠদান নিয়ে দুশ্চিন্তায় অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা পাকিস্তানে বাস খাদে পড়ে শিশু-নারীসহ নিহত ২৮

‘অদৃশ্য শক্তি’ দেশ পরিচালনা করছে : মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ দেশ পরিচালনা করছে না, অদৃশ্য শক্তি দেশ পরিচালনা করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শনিবার (১১ মে) বিকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ দাবি করে তারা দেশ চালাচ্ছে। আসলে কি তারা দেশ চালাচ্ছে? তারা দেশ চালায় না। এক অদৃশ্য শক্তি দেশ চালাচ্ছে এবং যাদের নির্দেশে তারা দেশের মানুষের অধিকার কেড়ে নিয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের রাষ্ট্রযন্ত্র আছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আছে, প্রশাসন আছে, বিচার ব্যবস্থা আছে– প্রত্যেকটা প্রতিষ্ঠানকে তারা কুক্ষিগত করেছে, দলীয়করণ করেছে। তাদের লোক ছাড়া কেউ কোথাও যেতে পারে না। চাকরিও পায় না। বাবা-মামা-চাচা-ভাই কেউ বিএনপির সঙ্গে জড়িত কি না, তাহলে চাকরি হবে না। টাকা ছাড়া কোনো চাকরি হয় না। এ অবস্থায় তারা দেশটাকে নিয়ে এসেছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, নির্বাচনী ব্যবস্থাকে গিলে খেয়ে ফেলেছে। প্রতিবার নির্বাচনে নতুন কৌশল গ্রহণ করে। এবার করেছে ডামি নির্বাচন। আমরা এজন্য দেশ স্বাধীন করিনি। দেশ স্বাধীন করেছিলাম এদেশের মানুষের রক্ত দিয়ে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য।

আওয়ামী লীগের নেতাদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, তারা বিভিন্ন সময় বলেন– এখন না কি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তাহলে এরশাদ সাহেবরা যাবেন কোথায়? তাহলে হিটলার ‍যাবে কোথায়, তাহলে মুসলিনী যাবেন কোথায়? নমরুদ-ফেরাউন যাবে কোথায়? হিটলার-নমরুদ-ফেরাউন কেউ টিকে থাকতে পারেনি। এরশাদ ও আইয়ুব খানও টিকে থাকতে পারেনি। এটা ভুলে যাবেন না।

বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, এদেশের মানুষ লড়াকু, বিদ্রোহী। সাময়িকভাবে হয়তো আন্দোলন কিছুটা ভাটা পড়তে পারে। আন্দোলন চলছে। কারারুদ্ধ নেতাকর্মীরাও আন্দোলন করছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপি কখনোই সন্ত্রাস সৃষ্টি করে না। সন্ত্রাস করার ইতিহাস বিএনপির নেই। আওয়ামী লীগেরই ইতিহাস সন্ত্রাসের। সন্ত্রাসের মধ্যেই আওয়ামী লীগের সৃষ্টি।

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে এ সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী যুবদল। যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুন হাসান সভাপতিত্ব করেন। শফিকুল ইসলাম মিল্টন, গোলাম মওলা শাহিন ও ইছহাক সরকার যৌথভাবে সঞ্চালনায় ছিলেন।

সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, যুবদলের এম মোনায়েম মুন্না, নুরুল ইসলাম নয়ন, মহানগর দক্ষিণ বিএনপির রফিকুল আলম মজনু, স্বেচ্ছাসেবক দলের এসএম জিলানী, কৃষক দলের হাসান জাফির তুহিন, ছাত্রদলের আবু আফসান মোহাম্মদ ইয়াহিয়া প্রমুখ বক্তব্য দেন।

শিপ্র/শাহোরা/

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2023 shironamprotidin.com
Design & Developed BY khanithost
error: Content is protected !!